Untitled-1 copyদেশে প্রতিবন্ধীরা বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছেন। উপায় না পেয়ে তারা ভিক্ষাকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করছেন। এ সমস্যা থেকে উত্তরণে প্রতিবন্ধীদের পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এর পাশাপাশি সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে।
‘ভিক্ষা নয়, কর্মসংস্থানের মাধ্যমে বাঁচার অধিকারের দাবি’ নিয়ে গতকাল জাতীয় প্রেস কাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা এ দাবি করেন। এতে অংশ নেন শতাধিক প্রতিবন্ধী।
নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে সমন্বয়ের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের জন্য বাস্তবায়নের দাবি জানান মানববন্ধনে বক্তারা।
বক্তারা বলেন, প্রতিবন্ধীরাও মানুষ। পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র এমনকি জাতিসঙ্ঘ সনদে অধিকার রয়েছে প্রতিবন্ধীদের। কিন্তু বাস্তবতার নিরীখে ওই অধিকার কতটুকু নিশ্চিত হয়েছে, সরকার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কি না তা খতিয়ে দেখা দরকার। বক্তারা অভিযোগ করেন, প্রতিবন্ধীদের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে অন্তর্ভুক্ত করা হলেও প্রতিবন্ধী শিশু-নারী আজো ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ভাতা ও পরীক্ষায় অতিরিক্ত সময় দেয়ার ব্যবস্থা করেছে। প্রতিবন্ধীদের যাতায়াতের জন্য পরিবহনে আসন বরাদ্দের ব্যবস্থা করা হলেও বিভিন্ন সময়ে তাদের হয়রানির শিকার হতে দেখা যায়। সরকারি হাসপাতালগুলোতে প্রতিবন্ধীদের চিকিৎসা দিতে বিশেষ ইউনিট খোলা হলেও স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হচ্ছে না।
মানববন্ধনে বক্তব্য দেন আলোকিত প্রতিবন্ধী সমিতির উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ফোরামের (বোয়াফ) সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময়, হরাইজন ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশনের সভাপতি ডেভিড এ হালদার, মিজানুর রহমান মিজান, মো: মনিরুজ্জামান (শাশ্বত মনির), মো: আকতারুজ্জামান, বজলুর রশিদ বুলু, পিটার গোনছালবেছ প্রমুখ।