Nirbhiknewsসংবিধান অনুযায়ী ২০১৮ সালের ডিসেম্বরেই শেখ হাসিনার সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে বলে মন্তব্য করেছেন ১৪ দলের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

সোমবার দুপুরে কক্সবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সাংবাদিকদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। এসময় সাতজন সাংবাদিককে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক বিতরণ করেন মন্ত্রী এবং মন্ত্রী ব্যক্তিগত তহবিল থেকে আরো এক লাখ টাকা অনুদান ঘোষণা করেন।

বিএনপি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ঠেকাতে চেয়েছিল উল্লেখ করে ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, ‘কিন্তু তারা (বিএনপি) তা ব্যর্থ হয়েছে। ’

বিশ্বের সব গণতান্ত্রিক দেশের মতো সংবিধান মেনেই নির্বাচন হবে জানিয়ে নাসিম বলেন, ‘নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী হবে। সংবিধান যে রায় দেবে, সেটাই আমরা মেনে নেব।

তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে অনুরোধ করব, নির্বাচনে আসুন। মাঠ ছেড়ে দয়া করে পালাবেন না। পালানোর অভ্যাস ত্যাগ করুন। মাঠে খেলা হোক, দেখেন কে জেতে কে হারে, রেফারি থাকবে নির্বাচন কমিশন।’

রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, খুব দ্রুতই রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে। এ জন্য জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক মহল মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছে। তা ছাড়া সরকার চুক্তি বাস্তবায়নে কাজ করছে। এসময় রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবায় সরকার খুবই আন্তরিক বলেও উল্লেখ করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, সংসদ সদস্য আশেকউল্লাহ রফিক, জেলা প্রশাসক (ডিসি) আলী হোসেন, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম,পৌর মেয়র মাহবুবুর রহমান, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে বলেছেন, সংবিধানের বাইরে নির্বাচন হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

বিএনপি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ঠেকাতে চেয়েছিল উল্লেখ করে ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, ‘কিন্তু তারা (বিএনপি) তা ব্যর্থ হয়েছে। মনে রাখবেন, আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবিবার দুপুরে রাজধানীর গুলশানের স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত চাইল্ড পার্লামেন্টের অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। খবর বাসসের।

চাইল্ড পার্লামেন্ট অধিবেশনটি যৌথভাবে আয়োজন করে সেভ দ্য চিলড্রেন, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ শিশু একাডেমী।

চাইল্ড পার্লামেন্টে ‘কিশোরীর পুষ্টি এবং স্বাস্থ্য ও শিক্ষা সেবা জবাবদিহিতা’ বিষয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এটি পরিচালনা করেন এই পার্লামেন্টের স্পিকার মেহতাহুন নাহার।

বাংলাদেশে শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠায় চাইল্ড পার্লামেন্ট একটি জাতীয় পর্যায়ের সংগঠন হিসেবে ২০০৩ সাল থেকে দেশে কাজ করে আসছে। ন্যাশনাল চিলড্রেন’স টাস্কফোর্স (এসসিটিএফ)-এর অ্যাডভোকেসি ফোরাম- চাইল্ড পার্লামেন্ট এ পর্যন্ত মোট ১৫টি অধিবেশন সম্পন্ন করেছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পার্লামেন্টের ১৬তম অধিবেশনে দেশের প্রতিটি জেলা থেকে একজন করে প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আওয়ামী লীগ কোনো ষড়যন্ত্র করে না। বিএনপি সব সময় ষড়যন্ত্র করে। তাই তাদের মাথায় ষড়যন্ত্র ঘুরে বেড়ায়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম চাইল্ড পার্লামেন্টে প্রতিনিধিদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘কমিউনিটি ক্লিনিকে প্রসূতি মায়েদের পাশাপাশি শিশু-কিশোরদেরও চিকিৎসা সেবা দেওয়া হবে। এজন্য এসব ক্লিনিকে আগামীতে ১০ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে।’

এপ্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘প্রতি সপ্তাহে অন্তত একদিন কমিউনিটি হেলথ ক্লিনিকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা শিশুদের স্বাস্থ্য সেবা দেবেন, আমরা সে ব্যবস্থা নিশ্চিত করবো। তবে এর জন্য সময় লাগবে।’

১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম সদ্য সমাপ্ত রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, রসিকের এই নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাংবাদিকরাও তা দেখেছেন। তাই এ নিয়ে বিএনপির অভিযোগ একেবারেই ভিত্তিহীন। রংপুরে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কেন পরাজিত হয়েছেন- সে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যার প্রতি বাংলাদেশের জনগণের আস্থা আছে। বরং গত জাতীয় নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।’