Nirbhiknewsভিভিয়ান ট্যানমিয়ানমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর অভিযান ও নিধনযজ্ঞের মুখে মাত্র দুই সপ্তাহে ২ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) জানিয়েছে, বিশাল সংখ্যক এই শরণার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় সামর্থ্য জাতিসংঘের নেই।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার মুখপাত্র ভিভিয়ান ট্যান এই মন্তব্য করেছেন। আল জাজিরার পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল ২ লাখ ৭০ হাজার শরণার্থীর জন্য প্রয়োজনীয় সামর্থ্য জাতিসংঘের রয়েছে কি-না। জবাবে ভিভিয়ান বলেন, ‘না নেই, এই অবস্থায় নেই। শরণার্থী সংখ্যা অনেক এবং তা বেড়ে চলেছে।’

ভিভিয়ান আরও বলেন, গত কয়েকদিন ধরে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা ও এনজিও অনেক স্থানে দ্রুত পর্যবেক্ষণের জন্য গিয়েছে। আমরা এমন কিছু এলাকায় গিয়েছি যেখানে শরণার্থীরা আছে বলে আগে জানতাম না। ওই সব স্থানে নতুন শরণার্থীরা রয়েছেন। রাস্তার দুই পাশে গ্রামে ও অস্থায়ী বসতি গড়ে উঠছে।

জাতিসংঘের এই কর্মকর্তা বলেন, ফলে আমাদের যথেষ্ট সামর্থ্য নেই। প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে আমার যে চিত্র দেখেছি তাতে আমাদের কী প্রয়োজন তা জানা গেছে। আমাদের তহবিলের জন্য আবেদন জানাতে হবে।

এর আগে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ৫৭ কোটি ১২ লাখ টাকা সহায়তা ঘোষণা করেছে জাতিসংঘ। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন থেকে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। সূত্র: আল জাজিরা।