Kalapara pic-02 (04.8কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক ছাত্রনেতা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক মঞ্জুরুল আলম বলেন, এক কালের অবহেলিত দক্ষিনের এ জনপদের উন্নয়নে সরকারের বেশ কয়েকটি মেঘা প্রকল্প চলমান রয়েছে। যেখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে লক্ষ লক্ষ মানুষের। এখানকার মানুষের জীবন যাত্রায় এরই মাধ্যে বইছে এর সুফল। এসব উন্নয়ন প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহনে মানুষ তার ভূমির ন্যায্য মুল্য পাচ্ছিলনা। বিষয়টি নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে বেশ কয়েকবার দেখা করেছি। প্রধানমন্ত্রী মানুষের সমস্যার কথা জেনে ভূমির মুল্য তিন গুন বৃদ্ধি করেছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে পটুয়াখালীর কলাপাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে তিনি উপস্থিত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, আমার নিজের ইউনিয়ন লালুয়া। সিডর বিধ্বস্ত ও নদী ভাংগন কবলিত এলাকা। শত প্রতিকুলতার মাঝেও সুখে-দুখে এখানকার মানুষের পাশে ছিলাম এখনও আছি ভবিষ্যতে থাকব ইনশাআল্লাহ। কলাপাড়া মহিলা কলেজের প্রতিষ্ঠার পর থেকেই অর্থনীতি বিভাগে অধ্যাপক হিসাবে দ্বায়িত্ব পালন কওে আসছি। এছাড়া রাজনৈতিক জীবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহচার্যে থেকে রাজনীতি করার সৌভাগ্য হয়েছে। নির্যাতন ও নিপীড়নে শিকার হয়েছি। মিথ্যা ও হয়রানি মূলক বহু মামলা আসামী হয়েছি। কিন্তু অদর্শ ও নীতি চুত্য কখনো হয়নি। কলেজে অধ্যাপনার পাশাপাশি এখনো দলকে পুর্ণাঙ্গ সময় দিচ্ছি।
সাংবাদিকদের প্রশ্নে উত্তরে মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক মঞ্জুরুলআলম বলেন, যেহেতু বর্তমানে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মুল্যায়ন হচ্ছে। সেহেতু আমার আশা ও বিশ^াস দল থেকে আমাকে মনোনয়ন দেয়া হবে। যদি মনোনয়ন পাই তা হলে দলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে। এ সময় বিভিন্ন গনমাধ্যমের সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।