emon_model_actress_Film_star_Bangladeshমডেলিং দিয়ে শোবিজে কাজ শুরু করেন ইমন। এরপর নাটকে অভিনয় শুরু করতেই সুদর্শন এই মডেলকে রূপালী পর্দার নির্মাতারা বড়পর্দায় কাজের জন্য প্রস্তাব দেন। এরপর তার নামের সঙ্গে যুক্ত হয় নতুন পরিচয়। সেটা হচ্ছে চিত্রনায়ক। এরইমধ্যে চিত্রনায়ক হিসেবে এই অঙ্গনে দশ বছর পার করছেন তিনি। সেই ২০০৭ সালে তৌকীর আহমেদের পরিচালনায় ‘দারুচিনি দ্বীপ’ ছবিতে অভিনয় করেন।

এরপর দীর্ঘ সময়ে বেশকিছু ছবি মুক্তি পেয়েছে তার। এরমধ্যে বেশকিছু কাজের জন্য প্রশংসাও পেয়েছেন। গত মাসে এ অভিনেতা নায়িকা নিপুণের সঙ্গে একটি শপিং মলের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। এই বিজ্ঞাপনটির নির্দেশনা দিয়েছেন বাশার। এরপরই নতুন ছবির কাজ হাতে নিয়েছেন ইমন। ছবির নাম ‘পাপকাহিনী’। শাহরিয়ার নাজিম জয়ের পরিচালনায় এ ছবিতে তমা মির্জার বিপরীতে অভিনয় করছেন তিনি। এবারই প্রথম তমা ও ইমন এক ছবিতে কাজ করছেন। এ ছবিটি নিয়ে ইমন বলেন, কয়েকদিন আগে ছবির কাজ শুরু করেছি। ছবিতে আমার বিপরীতে তমা মির্জা অভিনয় করছেন। এছাড়া সোহানা সাবাও আছেন এ ছবিতে। ছবিটিতে একজন চলচ্চিত্র তারকার চরিত্রে অভিনয় করছি। দারুণ একটি চরিত্র। আর জয় ভাই অনেক ভালো একজন পরিচালক। ওনার সঙ্গে কাজ করেও ভালো লাগছে। এদিকে ইমন সাদেক সিদ্দিকীর পরিচালনায় ‘সাহসী যোদ্ধা’ নামে নতুন আরেকটি ছবির কাজও করছেন। এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করছেন শিরিন শিলা। ইমন বলেন, আমি ‘সাহসী যোদ্ধা’ ছবিতে আয়কর বিভাগে যোগ দেয়া একজন সাহসী কর্মকর্তার চরিত্রে অভিনয় করছি। বলতে গেলে এক কথায় অন্যায়ের সঙ্গে কোনো আপস করে না এমন একটি চরিত্রে দর্শক আমাকে দেখতে পাবেন। এখানে আমার বিপরীতে শিরিন শিলা অভিনয় করছেন। আর শিলার সঙ্গে মোহাম্মদ আসলামের ‘আমার সিদ্ধান্ত’ নামে একটি ছবির কাজও করলাম। আশা করি, দুটি ছবিই দর্শকরা পছন্দ করবেন।

মৌলিক গল্পের কাহিনী নিয়ে তৈরি ছবিতে বেশি কাজ করতে চান ইমন। সবশেষ দর্শক তাকে স্বপন আহমেদের ‘পরবাসিনী’ ছবিতে দেখেছেন। সেটাও বেশ কিছু সময় আগের কথা। তবে চলতি বছর নতুন ছবিগুলো নিয়ে ফিরতে চান এই তারকা। তার অভিনীত নতুন ছবির তালিকায় আরো রয়েছে ‘কিলার’, ‘সমাধান’ প্রভৃতি। এদিকে বর্তমানে ইমনের মডেল হওয়া নাফিস রেজার নির্দেশনায় ‘প্রাণ আপ’-এর একটি বিজ্ঞাপন বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। এখানে ইমনের সঙ্গে মডেল হয়েছেন শখ।

অন্যদিকে মাঝে কলকাতায় ‘কাল্পনিক’ নামে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন ইমন। কৃষ পরিচালিত এ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ওপার বাংলার অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। এ ছবির আরো কিছু কাজ বাকি আছে বলে জানান ইমন। তিনি বলেন, ছবির কাজটি বেশ ভালো হয়েছে। আরও কিছু কাজ বাকি আছে আমাদের। কলকাতার প্রযোজক তপন দাদার সঙ্গে আমার পরিচয় ছিল। মূলত তার মাধ্যমেই নির্মাতা কৃষ আমার সঙ্গে এই কাজের জন্য যোগাযোগ করেন। সায়নী বেশ হেল্পফুল একজন অভিনেত্রী।

সবশেষে বর্তমান চলচ্চিত্রের উত্তরণের বিষয় নিয়ে কথা হলো ইমনের সঙ্গে। অনেকদিন ধরে এ সেক্টরে চিত্রনায়ক হিসেবে কাজ করছেন তিনি। বর্তমান চলচ্চিত্রের সার্বিক অবস্থা নিয়ে ইমন বলেন, বড়পর্দায় আরো বেশি ভালো কাজ দরকার। আর চলচ্চিত্রের গল্পে এখন মাল্টিকাস্টিং সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। চলচ্চিত্রের উন্নয়নে সিনিয়র-জুনিয়র মিলে কাজ করতে হবে। যারা ছবির কাহিনী প্রতিনিয়ত ভালো লিখছেন তাদের সেভাবে ছবির চিত্রনাট্য সাজাতে হবে। সেই সঙ্গে সিনেমা হলের পরিবেশ, আসন ব্যবস্থা, সেন্ট্রাল সার্ভারসহ বেশকিছু সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে আমাদের। এ সমস্যাগুলোর দ্রুত সমাধান করা দরকার। আমি আশা করি, তাহলেই আবার চলচ্চিত্রের সুদিন ফিরবে।