niphamari-domar-dimla-bangladeshনীলফামারী জেলার জলঢাকা ও ডোমার উপজেলায় কালবৈশাখী ঝড়ে পরে সাতজন নিহত হয়েছেন।

আজ শুক্রবার ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইব্রাহীম খলিল জানান, বৃহস্পতিবার রাতের ঝড়ে গোলনাটি চৌরঙ্গীবাজার এলাকায় গোয়ালঘরের মাটির দেয়াল ধসে পড়লে আবদুল গনি (৪০) নিহত হন। এ ছাড়া বোগতাপুরি গ্রামের আবদুর রহমানের ছেলে জামিরুল ইসলাম (১০) ঝড়ে গাছচাপা পড়ে মারা যায়।

উপজেলার পৃথক স্থানে ফাতেমা বেগম (৫৫) ও আবদুর রহমান (৫০) নামের আরো দুজন দেয়াল চাপা পড়ে মারা যান।

জলঢাকা উপজেলার মীরগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, রাতে ঝড়ের মধ্যে আবদুর রহিম (৩৫) ও শওকত আলী (৪৭) দেয়াল ধসে মারা যান।

তা ছাড়া কালবৈশাখীতে গাছচাপা পড়ে ধর্মপাল ইউনিয়নের বাসিন্দা আলমের (৩৫) মৃত্যু হয়। দুই উপজেলায় ঝড়ে ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং বহু গাছ পালা উপড়ে পরে যায়।