Nirbhiknewsক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ-বিষয়ক উপকমিটিতে স্থান পাচ্ছেন সরকারি চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ জন শিক্ষক।

গতকাল সোমবার করা ৪৯ সদস্যের শিক্ষা ও মানবসম্পদ-বিষয়ক উপকমিটির একটি খসড়া তালিকায় তাঁদের নাম রয়েছে। নামের তালিকার নিচে কমিটির আহ্বায়ক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আবদুল খালেক ও সদস্যসচিব আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক শামসুন নাহারের (চাঁপা) সই রয়েছে।

আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ  বলেন, শিক্ষা ও মানবসম্পদ-বিষয়ক পূর্ণাঙ্গ উপকমিটি এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। একটি খসড়া তালিকা করা হয়েছে। আরও আলোচনার পর তা চূড়ান্ত করা হবে।

চারজন উপাচার্য কমিটিতে সদস্য পদে স্থান পেয়েছেন। তাঁরা হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হারুন অর রশিদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মীজানুর রহমান ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডা. কামরুল হাসান খান।

কমিটির সদস্য পদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয়জন শিক্ষক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারজন এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক রয়েছেন।

এ ছাড়া কমিটিতে সাবেক অধ্যাপক, ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ ও নেতারা স্থান পেয়েছেন। জানতে চাইলে শামসুন নাহার বলেন, কমিটির সদস্যদের নামের তালিকা এখনো ঘোষণা করা হয়নি। খসড়া একটি তালিকা কেউ হয়তো পেয়ে তা প্রকাশ করেছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন উপাচার্য বলেছেন, তাঁকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই জানানো হয়নি। তাই এ নিয়ে এখনই কোনো মন্তব্য করবেন না তিনি।

তবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মীজানুর রহমান বলেন, ‘আমি শুনেছি, শিক্ষা ও মানবসম্পদ-বিষয়ক উপকমিটিতে আমাকে রাখা হয়েছে। তবে এটা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়নি। কমিটি হলে নিশ্চয়ই জানানো হবে। তখন এ ব্যাপারে মন্তব্য করা যাবে।’