http://nirbhiknews.com/wp-content/uploads/2018/06/Faruque-awamileague.jpgআগামী সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হতে চান চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক ও এক সময়ের তুখোড় চলচ্চিত্র অভিনেতা ফারুক। নিজের ইচ্ছা ও অবস্থান জানিয়ে তিনি বলেন: গাজীপুর-৫ আসন, মানে কালীগঞ্জে আওয়ামী লীগের যে শক্ত ঘাঁটি ছিলো সেটা এখন আর নাই। আওয়ামী লীগের অবস্থাকে নাজুক করে দেয়া হয়েছে। এই আসনটাকে আবার শক্ত ঘাঁটিতে পরিণত করতে হবে।

‘এখন যারা আছেন তারা আরো নাজুক করছেন। আমি মনে করি, কালীগঞ্জকে আবার সেই পুরনো শক্তিশালী ঘাঁটি করতে হবে। এজন্যই এখানে প্রয়োজন আছে আমার ইলেকশন করার। আগামীতে আমি ইলেকশন করতে চাই,’ বলে ইচ্ছার কথা জানান ফারুক।

সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার কোনো আশ্বাস পেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে ফারুক বলেন: মনোনয়নের বিষয়টা দেরি আছে। কিন্তু আমারতো কাজ কর্ম চলছে। অনেকে ছবি টাঙায়, শুভেচ্ছা দেয় কিন্তু আমি কাজ করছি আমার মতো। আমার ওয়ার্ক হলো ভেতরে ভেতরে। আমারতো ছবি টাঙানোর দরকার নেই।

শুধু গাজীপুর নয়, দেশের আনাচে কানাচে জনসংযোগ করছেন জানিয়ে তিনি বলেন: শুধু গাজীপুর নয়, বাংলাদেশের এমন কোনো জেলা নেই যেখানে আমি জনসভা করিনি। কথা বলেছি মানুষের সাথে। মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দির, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে কথা বলেছি। নিজেকে যাচাই করেছি।

‘চট্টগ্রাম যখন গিয়েছি তখন সেখানকার মানুষ বলে, আপনি চট্টগ্রাম থেকে নমিনেশন নেন। এখান থেকে আপনি পাশ করে যাবেন। এতো ভালোবাসে মানুষ আমাকে। আবার দেখা গেল নর্থ বেঙ্গলের মানুষও আমাকে একই কথা বলেছে। সিলেটে গিয়েও এরকম প্রচুর কথা আমি শুনেছি। মানে মানুষ আমাকে ভালোবাসে।’

তিনি বলেন, আমি হয়তো চলচ্চিত্র বা অন্য কোনো সংগঠনের ডাকে যাই, কিন্তু সেখানে গিয়ে আমি কিন্তু স্বাধীনতার পক্ষের কথাই বলে থাকি। আওয়ামী লীগের পক্ষের কথা বলি। বঙ্গবন্ধুর কথা বলি।

তার মানে আগামী নির্বাচনে আপনি পুরোপুরি অংশ গ্রহণ করতে প্রস্তুত? প্রশ্নে ফারুক বলেন: দ্বিতীয় কোনো কথা নেই, আমি আগামীতে নির্বাচন করতে চাই। আমি আমার দলের কাছে মনোনয়ন চাই। আমি আমার পার্টির চিফের কাছে অন্তর থেকে মনোনয়ন চাই। আমার চাওয়াটা আমি বললাম। আমি আশা করি আমাকে ধাক্কা দিয়ে দল থেকে সরিয়ে দেবে না।