http://nirbhiknews.com/wp-content/uploads/2018/06/abul-mal-abdul-muhit-shaikh-shiraji.jpgবাজেট সামনে রেখে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছে ৩৭ দফা সুপারিশমালা প্রদান করেছেন কৃষি উন্নয়ন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ। গতকাল অর্থমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে এই সুপারিশমালা হস্তান্তর করেন তিনি।

হৃদয়ে মাটি ও মানুষ আয়োজিত প্রাক বাজেট আলোচনা ‘কৃষি বাজেট কৃষকের বাজেট’-এর পক্ষ থেকে অর্থমন্ত্রীর কাছে এই সুপারিশমালা প্রদান করা হয়। এনিয়ে তের বারের মতো জাতীয় বাজেটের প্রাক্কালে ‘কৃষি ও কৃষকের জন্য করণীয়’ শীর্ষক সুপারিশমালা সরকারের কাছে প্রদান করলেন শাইখ সিরাজ। এর মধ্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের কাছেই নয়বার। ২০০৫ সালে তিনি চ্যানেল আইতে তার টেলিভিশন কার্যক্রম হৃদয়ে মাটি ও মানুষের পক্ষ থেকে জাতীয় বাজেটে কৃষকের মতামত ও অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে শুরু করেন ‘কৃষি বাজেট কৃষকের বাজেট’ কার্যক্রম।

সুপারিশমালায় মূল কৃষির জন্য ১৩ দফা, পোল্ট্রি শিল্পের জন্য ৫ দফা, মৎস্য খাতের জন্য ১১ দফা ও প্রাণিসম্পদ ও দুগ্ধ শিল্পের জন্য ৮ দফা প্রস্তাব করা হয়েছে। বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে শস্যবীমা, কৃষিপণ্য সংরক্ষণ ও কৃষকের পক্ষে বাজার উন্নয়নে বিশেষ পদক্ষেপ, সমন্বিতভাবে নদী ও খাল খননের উদ্যোগ, আগামী দিনের কৃষি উদ্যোক্তার সঙ্গে কৃষকের অংশীদারিত্বের একটি নীতিমালা প্রণয়ন এবং ফলন মৌসুমে কৃষিপণ্য আমদানি নিরুৎসাহিত করতে কর বাড়ানোর ওপর।

সুপারিশমালা গ্রহণ করে অর্থমন্ত্রী বলেছেন, জাতীয় বাজেটকে সাধারণ মানুষের কাছে আকৃষ্ট করে তোলার ক্ষেত্রে শাইখ সিরাজ-এর ‘কৃষি বাজেট কৃষকের বাজেট’ কার্যক্রমের ভূমিকা অনস্বীকার্য। কৃষিখাতের প্রতি সরকারের অব্যাহত গুরুত্বের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত ‘কৃষি বাজেট কৃষকের বাজেট’ শীর্ষক আলোচনা দেশের মোট ৫৯টি স্থানে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সর্বমোট ৩ লাখ ১৮ হাজার কৃষক অংশগ্রহণ করেন। এবার অনুষ্ঠিত হয়েছে দেশের তিনটি স্থানে। এর মধ্যে রয়েছে সিরাজগঞ্জ সদর, মানিকগঞ্জের জাগির ও সিলেটের কামালবাজার।

গত মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত এসব আলোচনার মধ্যে সিলেটের অনুষ্ঠানে অষ্টমবারের মতো উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী।